৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ | রবিবার | ১৮ই এপ্রিল, ২০২১

বিস্তারিত সংবাদ

সাটুরিয়ায় মাদ্রাসার ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা

সর্বশেষ আপডেট ডিসেম্বর ১৯, ২০২০ ইং

সাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ
মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার দরগ্রাম ইসলামিয়া সিনিয়র আলেয়া মাদ্রাসার নবম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় ওই বখাটের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু দমন আইনে মামলা হয়েছে শুক্রবার রাতে।

জানা গেছে, সাটুরিয়ার দরগ্রাম ইউনিয়নের বিলপুলি গ্রামের মোঃ ইনাম আলীর বখাটে ছেলে মোঃ লিটন মিয়া ১৬ ডিসেম্বর সকালে প্রতিবেশি এক বাড়ির নবম শ্রেণি ছাত্রীর শয়ন কক্ষে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ওই ছাত্রীর আত্নচিৎকারে বাড়ির লোকজন ঘুম থেকে জেগে ওঠে বখাটে লিটনকে ধরে আটকিয়ে রাখে। এ ঘটনায় স্থানীয় মাতাব্বররা মিমাংশার কথা বলে বখাটে ছেলে লিটনকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এদিকে ছাত্রীর মা সুষ্ঠ বিচার না পেয়ে সে ১৭ ডিসেম্বর থানায় মামলা করেন।

ছাত্রীর মা হেলেনা বেগম জানান, গত বছর অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া অবস্থায় ওই ছেলের কারণে আমার মেয়ে ৬ মাস স্কুলে যেতে পারেনি। স্কুলে আসা ও যাওয়ার পথে কুপ্রস্তাব দিত এবং আমার মেয়েকে হুমকি দিয়ে আসত। এ বিষয় নিয়ে একাধিক চ্যানেল পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়। এবিষয় নিয়ে থানা,ইউনিয়ন পরিষদ ও গ্রামে তিন দফায় শালিস করেন মাতাব্বর জামান মেম্বার, চুন্নু ও হামিদ মেম্বার। এতে বখাটে আরো ক্ষীপ্ত হয়ে উঠে। বখাটে সকালে ঘন কূয়াশার সুযোগ নিয়ে আমার মেয়ের ইজ্জত হরণ করতে চেষ্টা করে। এমনকি মেয়ের পরণের জামাকাপড় ছিড়ে ফেলে। এদিকে বখাটে পরিবারের সাথে যোগাযোগ করা হলে ফোনে কাউকে পাওয়া যায়নি।

সাটুরিয়া থানার ওসি মোহাম্মদ আশরাফুল আলম বলেন, ঘটনার তদন্তে প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে। ওই বখাটেকে ধরতে পুলিশ মাঠে কাজ করছে। ছাত্রীর মা হেলেনা বেগম বাদী নারী ও শিশু দমন আইনে মামলা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *