১১ই মাঘ, ১৪২৭ | সোমবার | ২৫শে জানুয়ারি, ২০২১

বিস্তারিত সংবাদ

যুক্তরাষ্ট্রে ৪ রাজ্যে আগাম ভোট শুরু

সর্বশেষ আপডেট সেপ্টেম্বর ২১, ২০২০ ইং

আমারজমিন নিউজ ডেস্ক : শুরু হয়ে গেছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোট গ্রহণ। দেশটির চার রাজ্যে শুক্রবার থেকে চলছে আগাম ভোট গ্রহণ। জনমত জরিপে এখন অবধি প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে জয়ী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছেন ডেমোক্রেটিক প্রার্থী জো বাইডেন। শুক্রবার আগাম ভোট গ্রহণ শুরু হওয়া মিনেসোটায় মুখোমুখি প্রচারণা চালিয়েছেন এই দুই নেতা। জনমত জরিপে পিছিয়ে থাকলেও মিনেসোটায় এগিয়ে থাকার চেষ্টা করছেন ট্রাম্প। ২০১৬ সালে তার তৎকালীন ডেমোক্রেটিক প্রতিদ্বন্দ্বী হিলারি ক্লিনটনের কাছে রাজ্যটিতে ১.৫ শতাংশ পয়েন্টে হেরেছিলেন ট্রাম্প। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
খবরে বলা হয়, মিনেসোটার পাশাপাশি ভার্জিনিয়া, সাউথ ডাকোটা ও ওয়াইয়োমিং রাজ্যেও আগাম ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। স্থানীয় সময় শুক্রবার সকালের দিকেই ভোট শুরু হয়।

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারির কারণে এ বছর অনেক ভোটারই আগাম ভোট ও ডাকযোগে ভোট দেবেন বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে।
মিনেসোটার মিনেয়াপোলিসে ভোটকেন্দ্র খোলার ৩০ মিনিটের মধ্যে ৪৪ জন ভোট দিয়েছেন বলে জানা গেছে। কয়েকজন ভোটার জানিয়েছেন, ভীড় এড়াতে সকাল সকাল ভোট দিতে চান তারা।
ভার্জিনিয়ার ফেয়ারফ্যাক্স ও আরলিংটনে নির্বাচনী কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সেখানে ভোটার উপস্থিতি ব্যাপক। ভোটকেন্দ্রের বাইরে লাইন ধরে দাঁড়িয়ে আছেন ভোটাররা।
করোনা মহামারির কারণে উভয় প্রার্থীই তাদের নির্বাচনী প্রচারণা সীমিত রেখেছেন। তবে শুক্রবার সকালে উভয়েই মিনেসোটায় উপস্থিত ছিলেন। সম্প্রতি রাজ্যটির মিনিয়াপোলিসে পুলিশের হাতে জর্জ ফ্লয়েড নামের এক কৃষ্ণাঙ্গের নির্মম হত্যা ঘিরে ব্যাপক বিক্ষোভ দেখা দেয়। পুরো দেশজুড়েই ছড়িয়ে পড়ে সে বিক্ষোভ। বিক্ষোভকারীদের প্রতি কঠোর অবস্থান নিয়েছিলেন ট্রাম্প। শহরটিতে আইন ও শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে, বিক্ষোভকারীদের আখ্যায়িত করেছেন উগ্র-বামপন্থি হিসেবে। তিনি বলেন, বাইডেন জয়ী হলে ওইসব উগ্র-বামপন্থিরা আরো প্রশ্রয় পাবে। শুক্রবার হাজারো সমর্থকের সামনে ট্রাম্প বলেন, মিনেসোটায় তার অর্থনৈতিক রেকর্ডের কারণেই জয়ী হবেন তিনি।
এদিকে, মিনেসোটায় জনমত জরিপে এগিয়ে আছেন বাইডেন। জনমত জরিপ বিষয়ক ওয়েবসাইট রিয়েলক্লিয়ারপলিটিকস অনুসারে, শুক্রবার পর্যন্ত রাজ্যটিতে ট্রাম্পের চেয়ে গড়ে ১০.২ শতাংশ পয়েন্ট নিয়ে এগিয়ে আছেন বাইডেন। জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকা- ঘিরে সৃষ্ট সহিংসতার তীব্র সমালোচনা করেছিলেন বাইডেন। যদিও বর্ণবৈষম্য ও পুলিশি নৃশংসতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভকারীদের আন্দোলনের প্রতি সমর্থন জানিয়েছিলেন তিনি।
শুক্রবার মিনেসোটায় প্রচারণা চালান বাইডেন। করোনা মহামারিতে রাজ্যটির অর্থনৈতিক ধসের চিত্র তুলে ধরেন। এজন্য ট্রাম্পকে দায়ী করেন তিনি। বলেন, রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট করোনা মোকাবিলায় তেমন কিছুই করেননি। তিনি আরো বলেন, ট্রাম্প তার দায়িত্ব পালনের অভিনয় করাও বন্ধ করে দিয়েছে।
জয়ী হলে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে অবকাঠামো উন্নয়নে ২ লাখ কোটি ডলার বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বাইডেন। এছাড়া, জলবায়ু পরিবর্তন নিয়েও কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।
রয়টার্স জানিয়েছে, মিনেসোটায় জনমত জরিপে এগিয়ে থাকা বাইডেনের নির্বাচনী সম্ভাবনার প্রকৃত চিত্র ফুটিয়ে তোলে না। আদতে এর চেয়েও বেশি এগিয়ে আছেন তিনি। সাবেক শিল্পাঞ্চল ‘রাস্ট বেল্ট’ রাজ্যগুলোয়-মিশিগান, উইসকনসিন ও পেনসিলভানিয়াতেও ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে আছেন তিনি। ২০১৬ সালের নির্বাচনে এই তিন রাজ্যেই ক্লিন্টনের কাছ থেকে জয় ছিনিয়ে নিয়েছিলেন ট্রাম্প।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *